ঘুমন্ত কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা, ৯৯৯ এ কলে বখাটে ধরা

0
49

জরুরি সেবা ৯৯৯ এ কল দিয়ে ধর্ষণের হাত থেকে বাচঁল এক কলেজছাত্রী। পরে তার অভিযোগে অভিযুক্ত বখাটেকে আটক করেছে পুলিশ। সোমবার বিকেলে কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলার শিবপুর ইউপির টান কৃষ্ণনগর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। 

আটক বখাটে যুবকের নাম হৃদয় মিয়া। সে একই গ্রামের কাজল মিয়া ছেলে। মঙ্গলবার দুপুরে তাকে জেলা কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ। 

উপজেলার শিবপুর ইউপির টান কৃষ্ণনগর গ্রামের ওই কলেজছাত্রী স্থানীয় একটি কলেজে দ্বিতীয় বর্ষে পড়ে। বাবা-মা হারা কলেজছাত্রী বড় ভাইয়ের সংসারে থেকে পড়াশুনা করছে। পরিবারের উপার্জনকারী তার একমাত্র ভাই। এমন অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে বখাটে যুবক হৃদয় মিয়া দীর্ঘ দিন ধরে বিভিন্নভাবে তাকে উত্যক্ত করে আসছে। একই সঙ্গে কলেজে আসা-যাওয়ার পথে গতিরোধ করে বিরক্ত করতো। এসব বিষয়ে বখাটের পরিবার ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের কাছে একাধিকবার অভিযোগ করলেও কোনো প্রতিকার পাওয়া যায়নি। ফলে বাধ্য হয়ে বছর-দেড়েক আগে থানায় জিডি এব ইউএনও’র কাছে লিখিত অভিযোগ করে। পরে কিছু দিন বন্ধ থাকলে আবার তাকে উত্ত্যক্ত করতে শুরু করে হৃদয়।

সোমবার দুপুরে বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগ নিয়ে ঘুমন্ত অবস্থায় বসত ঘরে ঢুকে দরজা আটকে দেয় বখাটে যুবক হৃদয়। বিষয়টি টের পেয়ে তার আত্ম-চিৎকারে আশ-পাশের প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে হৃদয় পালিয়ে যায়। পরে লিমার বড় ভাইকে ঘটনা শুনে জরুরি সেবা ৯৯৯ এ কল দিয়ে পুলিশের সহযোগিতা চায়। পরে ভৈরব থানা পুলিশ এলাকায় অভিযান চালিয়ে বখাটে যুবককে আটক করতে সক্ষম হয়।

ভৈরব থানার ওসি মো. মোখলেছুর রহমান বলেন, ৯৯৯ হলো পুলিশের জরুরি সেবা দেয়ার একটি ডিজিটাল মাধ্যম। ভুক্তভোগী ৯৯৯ এ কল দেয়ার কারণে পুলিশ হেড কোয়াটার থেকে নির্দেশনা পেয়ে অভিযোগের ভিত্তিতে হৃদয় মিয়া নামে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। পরে কলেজ

একটি উত্তর ত্যাগ

দয়া করে আপনার মন্তব্য লিখুন !
দয়া করে এখানে আপনার নামটি লিখুন