চোখে ট্যাটু এঁকে অন্ধ হলেন এই মডেল

0
80

শরীরের অত্যন্ত মূল্যবান ও সংবেদনশীল অঙ্গ চোখে ট্যাটু এঁকে চিরতরে দৃষ্টি হারিয়েছেন ২৫ বছর বয়সী পোল্যান্ডের এক মডেল।

পোল্যান্ডের ওই ভুক্তোভোগী মডেলের নাম আলেকজান্দ্রা স্যাডোওস্কা। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইলের বরাত দিয়ে ভারতীয় এনডিটিভি এ তথ্য জানিয়েছে।

এনডিটিভি জানায়, মডেল আলেকজান্দ্রা স্যাডোওস্কা পোল্যান্ডের র‌্যাপার পোপেককে খুব অনুসরণ করেন। ওই র‌্যাপারের মতোই লুক পেতে চোখের ভেতরে ট্যাটু আঁকতে আগ্রহী হন। এর নাম আইবল বা স্ক্লেরাল ট্যাটু। এতে চোখের সাদা অংশটিতে কালো রঙ দেয়া হয়।

পরে ট্যাটু করাতে পিয়োটার নামে স্থানীয় এক ট্যাটুশিল্পীর দারস্থ হন আলেকজান্দ্রা। পছন্দ অনুযায়ী পিয়োটার তার চোখের ভেতরে ট্যাটু আঁকেন। তবে ট্যাটু আঁকার পর থেকেই প্রচণ্ড ব্যথা অনুভব করেন আলেকজান্দ্রা।

এ ঘটনায় পিয়োটার তাকে জানায়, বিষয়টি স্বাভাবিক এবং পেইন কিলার খেলেই ব্যথা থাকবে না। কিন্তু তা না হয়ে ধীরে ধীরে চোখে অন্ধকার দেখতে শুরু করেন আলেকজান্দ্রা। সেই অন্ধকার জগত ছেড়ে আর আলোর জগতে ফেরা হয়নি আলেকজান্দ্রার। অবশেষে চিরতরে অন্ধ হয়ে যান!

এ বিষয়ে আলেকজান্দ্রার চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ট্যাটু আঁকতে গিয়ে আলেকজান্দ্রার চোখের মণিতে আঘাত করে ওই ট্যাটুশিল্পী। এ ছাড়া ওই ট্যাটু করতে যে কালি ব্যবহার করা হয় তা সরাসরি আলেকজান্দ্রার রেটিনার সংস্পর্শে আসে। এতেই অনেকাংশে দৃষ্টিশক্তি হারিয়ে ফেলেন।

আলেকজান্দ্রা জানান, এ ঘটনায় দুর্ভাগ্য মেনে নেয়া ছাড়া আর কিছুই করার নেই। চিকিৎসকরা দৃষ্টির উন্নতির জন্য তেমন আশাবাদী নন। ক্ষতিটা খুব গভীর এবং ব্যাপক। আমি সম্পূর্ণ অন্ধ হয়ে যাব বলেই আশঙ্কা করছি।

এদিকে এ ঘটনায় আলেকজান্দ্রার মামলায় ট্যাটু শিল্পী পিয়োটারকে তিন বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে দেশটির আদালত।

একটি উত্তর ত্যাগ

দয়া করে আপনার মন্তব্য লিখুন !
দয়া করে এখানে আপনার নামটি লিখুন