সাগরে নেমে শিক্ষার্থীর মৃত্যু, আরেক বন্ধু নিখোঁজ

0
28

কক্সবাজার সৈকতের লাবণী পয়েন্টে গোসল করতে নেমে নিখোঁজ দুই বন্ধুর মধ্যে একজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

শনিবার বিকেলে কলাতলী পয়েন্ট থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। এ সময় আরো পাঁচ শিক্ষার্থীকে সৈকত থেকে অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। এর আগে দুপুরে সৈকতে ভাটার সময় এ নিখোঁজের ঘটনা ঘটে।

মৃত মো. রফিকুল ইসলাম ঢাকায় আইএলটিএস অধ্যয়নরত এবং কক্সবাজার শহরের পাহাড়তলীর বাসিন্দা। নিখোঁজ আরিফুল ইসলাম কক্সবাজার শহরের রুমালিয়ারছরা পিটি স্কুল এলাকার বাসিন্দা ও রাজশাহী প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (সিএসই) বিভাগের শিক্ষার্থী। দুজনেই কক্সবাজার সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের ২০১৫ ব্যাচ ও ২০১৭ ব্যাচের কক্সবাজার সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী ছিলেন এবং তারা বন্ধু।

সৈকত থেকে উদ্ধার ইফতারুল শাহীন ও জাজি জানান, দেশের বিভিন্ন এলাকায় অধ্যয়নরত বন্ধুরা ঈদের ছুটিতে শুক্রবার সৈকতে বেড়াতে আসে। এদের মধ্যে আট বন্ধু ফুটবল নিয়ে সৈকতের বালিয়াড়িতে খেলতে যায়। ফুটবল খেলে সবাই গোসল করতে নামে। এ সময় অসাবধানতাবশত পাঁচজন চোরাবালিতে আটকা পড়ে। তিনজনকে কোনোমতে উদ্ধার করা গেলেও আরিফ ও রফিক নিখোঁজ হয়। পরে রফিকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

সদর থানার ওসি (তদন্ত) মো. খায়রুজ্জামান বলেন, ভাটার নিষিদ্ধ সময়ে ওই শিক্ষার্থীরা সাগরে গোসল করতে নেমেছিল। এ সময় চোরাবালিতে আটকা পড়ে পাঁচ শিক্ষার্থী। এরমধ্যে তিনজনকে উদ্ধার করা গেলেও দুজন নিখোঁজ হয়।

ট্যুরিস্ট পুলিশ কক্সবাজার জোনের এসপি মো. জিল্লুর রহমান জানান, নিখোঁজ আরিফকে উদ্ধারে অভিযান চালাচ্ছে ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয় লাইফগার্ড কর্মীরা। তার সন্ধান না পাওয়া পর্যন্ত উদ্ধার অভিযান অব্যাহত থাকবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

দয়া করে আপনার মন্তব্য লিখুন !
দয়া করে এখানে আপনার নামটি লিখুন